বেনাপোলে ফুটপাত উচ্ছেদে বাধা

0 ১৩০

বেনাপোল প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারি-বেসরকারি সংস্থা বিভিন্নভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সীমান্তবর্তী শহরগুলোতে সরকার আরো বেশি সতর্কতা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য নির্দেশনাও দিয়েছে। বিশেষ করে দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর ও আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট ভারতের প্রধান প্রবেশদ্বার বেনাপোলে সতর্কতা অবলম্বনের জন্য সরকার বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে। সেই অনুযায়ী বেনাপোল পৌরসভা নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। সম্প্রতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলমের নির্দেশে রাস্তার ফুটপাত দখলকারীদের উচ্ছেদের উদ্যোগ নেয়া হয়। সেই সাথে বাজারে ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের মাঝে স্বাস্থ্য উপকরণ বিতরণ অব্যাহত রেখেছে। গত দুই দিনের ন্যায় বৃহস্পতিবার ফুটপাত উচ্ছেদে মাঠে নামলে বাজারের হালিম ব্যবসায়ী কুদ্দুস আলী বেনাপোল পৌরসভার কর্মীদের উপর চড়াও হন। এক পর্যায় পৌর কর্মীদের তিনি ধাক্কা দেন।

বেনাপোল পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মাসুম বলেন, দেশে করোনা মহামারি অধিকতর বেড়ে যাওয়ায় আমরা বেনাপোল শহরকে করোনা মোকাবিলা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে মাঠে কাজ করে যাচ্ছি। যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের উপর প্রতিদিন বসে ফুটপাতে বাজার বসে। এখান দিয়ে অগণিত মানুষের চলাফেরায় ঝুঁকি বাড়ার আশঙ্কায় ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত দুইদিনের অভিযান অমান্য করে ফুটপাতে হালিম ব্যবসায়ী তার চেয়ার-টেবিলসহ অন্যান্য মালামাল রেখে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ব্যবসা পরিচালনা করেন। পৌর কর্তৃপক্ষ তা নিষেধ করায় তিনি বাজার পরিদর্শক আমজাদ হোসেন জনি, কর আদায়কারী শিমুল আক্তার ও স্বাস্থ’্য সহকারী হাফিজুর রহমান এর উপর চড়াও হন এবং এলাকার প্রভাব খাটিয়ে তাদের ধাক্কা দেন।

উচ্ছেদ অভিযানের নেতৃত্ব দেন বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু। তিনি বলেন, আমরা তথা দেশবাসী এক দুঃসময় পার করছি। সবথেকে বেশি ঝুঁকিতে সীমান্ত অধিবাসী। তাই এই সীমান্ত শহরের জনগণকে করোনা মহামারি থেকে রক্ষা করতে আমরা প্রতিদিন মাস্কসহ অন্যান্য উপকরণ বিতরণ ও ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রেখেছি। বৃহস্পতিবার একজন ব্যবসায়ী পৌর কর্মচারীদের সাথে যে আচরণ করেছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক।

বেনাপোল বাজার কামিটির সভাপতি আজিজুর রহমান আজু বলেন, পৌর কর্মচারীদের সাথে বাজারের হালিম ব্যবসায়ী কুদ্দুসের সাথে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। আমরা বিষয়টি দেখব।

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে বাজারে একজন ব্যবসায়ী অশোভন আচরণ করেছেন। তবে এরপর যাতে কোন রকম ঝামেলা না হয় তার জন্য পুলিশ টহল দিচ্ছে।

মন্তব্য
Loading...