ডিপিএলে সাকিব-তাসকিনদের তুলোধুনো করলেন যশোরের ইমরানুজ্জামান

0 ৯২

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে জৌলুস ও মর্যাদাপূর্ণ আসর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আবারও ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছেন যশোর জেলা দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ইমরানুজ্জামান। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) এর চার নম্বর মাঠে সাকিব-তাসকিনদের বেদম পিটিয়ে খেলেছেন ১৪ বলে ৪১ রানের এক টর্নেডো ইনিংস। ১৪ বলের ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ২টি চারের মার।

ইমরানুজ্জামানের ব্যাটিং ঝড়ে দেশের ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডানকে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে হারের স্বাদ দিয়ে চতুর্থ জয় পেয়েছে তার দল প্রাইম দোলেশ্বর। চার জয়ের দুটিতে ম্যাচ সেরা যশোর ধর্মতলা এলাকার এই ক্রিকেটার।

ইমরানুজ্জামান তাসকিন, সাকিব ও রুয়েল মিয়ার বল খেলেছেন। তিনজনকেই মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলেই মেরেছেন ওভার বাউন্ডারি। ইনিংসের প্রথম বলে জাতীয় দলের পেসার তাসকিন আহমেদকে ছয় দিয়ে শুরু করেন। তাসকিনের পরের বলও বাউন্ডারি ছাড়া করেন ইমরান। পাঁচটি ছক্কার দুটি করে মেরেছেন সাকিব ও রুয়েল মিয়ার বলে। সাকিবের পঞ্চম বলে আউট হওয়ার আগে দুই ওভার বাউন্ডারিতে করেন ১৩ রান। সবচেয়ে ঝড় গেছে রুয়েল মিয়ার উপর দিয়ে। রুয়েলের ছয় বল থেকে নেন ১৭ রান।

ব্যাট হাতে ইমরানুজ্জামানের সাথে ঝড় তোলেন শামীম পাটোয়ারি। বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ৪ ওভারেই ৬৮ রান যোগ করেন দুজন। সাকিব, তাসকিনরা অসহায় ছিলেন তাদের কাছে।

৬ ওভারের ম্যাচে ইনিংসের চতুর্থ ওভারের শেষ বলে মাত্র ১৪ বলে ৪১ রানের ইনিংস খেলে আউট হন ইমরানুজ্জামান। সাকিবের বলে ফিরে যাওয়ার আগে নিজের ইনিংসটি সাজান ২টি চার ও ৫টি ছয়ের মারে। সঙ্গে শামীমের ১৬ বলে ২৫ রানের উপর ভর করে নির্ধারিত ৬ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ৭৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করে প্রাইম দোলেশ্বর। মোহামেডানের হয়ে মাত্র ৪ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন পেসার আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি।

লক্ষ্য টপকাতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই আউট হন মোহামেডান ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন। পেসার শফিকুলের বলে কাটা পড়ে ফেরেন শূন্য হাতে। এক বল পরে শুভাগত হোমকে একই পথ অনুসরণ করান শফিকুল। এরপর সাকিব, নাদিফ চৌধুরী আর ইরফান শুক্কুর চেষ্টা চালালেও লাভ হয়নি। প্রয়োজন অনুযায়ী রান তুলতে পারেননি তারা। ৬ ওভার থেকে ২২ রান সংগ্রহ করতে পারে মোহামেডান। এতে ২২ রানে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ে প্রাইম দোলেশ্বর।

নাদিফ ১১ বলে ১৬ ও সাকিব ১৪ বলে ২২ রান করে আউট হন। ৮ বলে ১১ রান করে অপরাজিত থাকেন শুক্কুর। প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে শফিকুল ৩ এবং রেজাউর রহমান রাজা নেন একটি উইকেট।

মন্তব্য
Loading...