২০ আইনজীবীর নামে তিন মামলা

0

সাতক্ষীরা অফিস

সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র আইনজীবীদের ল’ চেম্বারের নামফলক ভাঙচুরের ঘটনায় বারের সাবেক সভাপতি এম শাহ আলম ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক তোজাম্মেল হোসেন তোজামসহ ২০ আইনজীবীর নামে দ্রুত বিচার আইনে পৃথক ৩টি মামলা দায়ের হয়েছে। রোববার সাতক্ষীরার দ্রুত বিচার আদালতের বিচারক মো. রেজওয়ানুজ্জামানের আদালতে এসব মামলা দাখিল করা হয়। বিচারক মামলা ৩টি তদন্ত করে আগামী ১৭ মে প্রতিবেদন দাখিলের জন্যে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, আইনজীবী শাহ আলম ও তোজাম্মেল হোসেন তোজাম ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত বারের নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন। পরে সমিতির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দায়িত্ব পালন না করে লাখ লাখ টাকা বাজেট বহির্ভূতভাবে স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে খরচ-অপচয় করাসহ গঠনতন্ত্রের পরিপন্থি বিভিন্ন কার্যকলাপে লিপ্ত হন। এ পরিস্থিতিতে বারের সাধারণ সদস্যদের স্বার্থ সংরক্ষণ করাসহ ১৫০ বছরের ঐতিহ্যবাহী বারের ঐতিহ্য সমুন্নত রাখতে গত ১৮ মার্চ আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের বার্ষিক নির্বাচন শেষে নতুন কমিটি নির্বাচিত হওয়ার পর ‘সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী ঐক্য পরিষদ’ নামে সর্বদলীয় এক কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির আহ্বায়ক নির্বাচিত হন সাবেক সংসদ সদস্য ও বারের সাবেক সভাপতি স. ম সালাউদ্দীন। সদস্য সচিব নির্বাচিত হন বারের সাবেক সভাপতি আব্দুল মজিদ ও প্রধান উপদেষ্ঠা নির্বাচিত হন সাতক্ষীরা ল’ কলেজের অধ্যক্ষ, সাবেক পিপি এবং বারের সাবেক সভাপতি এসএম হায়দার। নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে সম্প্রতি এক সভার মাধ্যমে শাহ আলম ও তোজ্জাম্মেল হোসেন তোজামের বিগত দিনের গঠনতন্ত্র পরিপন্থি কার্যকলাপ জনসম্মুখে প্রকাশ পায়। ফলে তারা তাদের সহযোগীদের নিয়ে ‘সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী ঐক্য পরিষদ’র শীর্ষস্থানীয় ৩ কর্মকর্তাসহ অন্যান্য আইনজীবীদের বিভিন্নভাবে হয়রানি, ক্ষতিগ্রস্ত ও সম্মানহানির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৭ এপ্রিল দুপুর অনুমান পৌনে একটায় এম শাহ আলম, এএসএম আশরাফুল আলম, সরদার আমজাদ হোসেন ও তোজাম্মেল হোসেন তোজামের নেতৃত্বে অন্যান্য আইনজীবী আসামিরা এসএম হায়দার, স.ম সালাউদ্দীন ও আব্দুল মজিদের ল’ চেম্বারের নামফলকসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করেন। ওই ঘটনায় এসএম হায়দারের পক্ষে তার জুনিয়র সেলিনা আক্তার শেলী, স.ম সালাউদ্দীনের পক্ষে তার জুনিয়র নূরুল আমিন ও আব্দুল মজিদের পক্ষে তার জুনিয়র শাহিনুজ্জামান শাহীন মামলা ৩টি দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, এম শাহ আলম, এএসএম আশরাফুল আলম, সরদার আমজাদ হোসেন, তোজাম্মেল হোসেন তোজাম, তপন কুমার দাস, ওসমান গনি, আজিবর রহমান, জেডএম আব্দুল্যাহ আল মামুন, শেখ ই- জেএস হাসিব, আসাদুল ইসলাম আসাদ, তারিক ইকবাল অপু, শেখ আরিফুর রহমান আলো, শরফুদ্দীন ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, আমিনুর রহমান চঞ্চল, সাহেদুজ্জামান সাহেদ, জিয়াউর রহমান, শামিমুর রেজা শামীম, গাজী আব্দুস সালাম ও আসাদুর রহমান বাবু। মামলার বাদী, আসামি ও সাক্ষীরা সবাই সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য।

মন্তব্য
Loading...