প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন : শার্শায় ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ দিয়ে যুবককে হয়রানি

0 ১৫

নিজস্ব প্রতিবেদক

যশোরের শার্শার টেংরা গ্রামের ইসমাঈল হোসেন নামে এক যুবককে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। জাহাঙ্গীর নামে এক ব্যক্তি ইসমাঈলকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদে ব্যর্থ হয়ে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন বলে অভিযোগ।
বর্তমানে ইসমাঈল হোসেন কারাগারে থাকায় তার স্ত্রী-সন্তান মানবেতর জীবনযাপন করছেন। বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম।
রোববার প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করে এই দাবি করেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিবেশী রবিউল ইসলাম ও নাজমুল ইসলাম।
লিখিত বক্তব্যে ফাতেমা বেগম বলেন, তাদের বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারি উপজেলায়। তারা উভয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বী ছিলেন। দুজনে প্রেম করে নিজ এলাকা ছেড়ে শার্শার টেংরা গ্রামে এসে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করে বিয়ে করেন। এরপর একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে সংসার শুরু করেন। ইসমাঈল রাজমিস্ত্রীর সহযোগির কাজ করায় সংসার ভালো চলছিল না। এরপর ইসলাম সরদার তাদের একখ- পতিত জমি দেন বাড়ি করে বসবাসের জন্য। গ্রামবাসীর সহযোগিতায় তারা টিনের ঘর তৈরি করে বসবাস করে আসছেন। এরমধ্যে ইসলাম সরদার মারা যান। বেশ কিছুদিন ধরে ইসলাম সরদারের ছেলে জাহাঙ্গীর ও তার স্ত্রী জমি ছেড়ে দিতে বলেন। নিজেরা ভূমিহীন হওয়ায় তারা প্রতিবেশীদের সহযোগিতা চান। এরমধ্যে জাহাঙ্গীরের ফুপাতো বোন তাসলিমা বাড়িতে এসে জমি খালি করে দেয়ার জন্য জোর তাগাদা দেন। জমি ছাড়তে দেরি হওয়ায় পরিকল্পনা অনুযায়ী তাদের এক মেয়েকে ইসমাঈল ধর্ষণের চেষ্টা করেছেন বলে থানায় অভিযোগ দেন। পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে ইসমাঈলকে ধরে নিয়ে যায়। সম্পূর্ণ মিথ্যা অভিযোগে তার নামে মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে তদন্ত করে মিথ্যা অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের প্রতি দাবি জানিয়েছেন ইসমাঈলের স্ত্রী ফাতেমা বেগম।

মন্তব্য
Loading...