কালিয়ায় ছাত্রলীগের দুগ্রুপ সমাবেশে ডাকায় ১৪৪ ধারা

১৫

নড়াইল প্রতিনিধি

নড়াইলের কালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দুটি গ্রুপ একই স্থান ও সময়ে বিজয় মিছিল এবং সমাবেশের ডাক দেয়ায় মঙ্গলবার বেলা ১১ থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করে উপজেলা প্রশাসন।
বিষয়টি নিশ্চিত করে কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল হুদা জানান, শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় উপজেলা শহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এ সময়ে কোনো প্রকার মিছিল, লোকসমাগম ও সভাসমাবেশ করা যাবে না।
গত ২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে নড়াইলের কালিয়া উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণার পর থেকে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে পরেরদিন উপজেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। তারা নতুন কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে পাল্টা কমিটি করে।
এরপর দুইগ্রুপের নেতাকর্মীরা মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে একই সময় ও একই স্থানে পাল্টাপাল্টি ‘বিজয় মিছিল’ করার ঘোষণার দেন। এ কারণে কালিয়া উপজেলা প্রশাসন শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় ১৪৪ ধারা জারি করে।
পদবঞ্চিতরা জানান, নবগঠিত কালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি মনোনীত না হওয়ায় গত ২৩ অক্টোবর দুপুরে বিক্ষোভ সমাবেশে পাল্টা কমিটি ঘোষণা করেন উপজেলা ছাত্রলীগের বিদায়ী সভাপতি ইব্রাহিম শেখ। তিনি জানান, তাদের ঘোষিত কমিটিতে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়ামিন বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুল হক অনিক এবং পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নিয়ামত হোসেন প্রান্ত ও সাধারণ সম্পাদক রাইসুল ইসলাম হৃদয়কে মনোনীত করা হয়েছে।
পদবঞ্চিত নেতাদের অভিযোগ, জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ঘোষিত কালিয়া উপজেলা ও পৌর কমিটিতে যোগ্য এবং ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা হয়নি। এমনকি বিবাহিতদের কমিটিতে রাখা হয়েছে। এই ‘পকেট কমিটি’ অবিলম্বে বাতিল করে নতুন কমিটি ঘোষণার দাবি করেন তারা।
এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চঞ্চল শাহরিয়ার মীম বলেন, তাদের (পদবঞ্চিত) কমিটি ঘোষণার কোনো অধিকার নেই। জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী এক বছরের জন্য এফএম সোহাগকে কালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও রাইসুল ইসলাম পান্নুকে সাধারণ সম্পাদক এবং এমএম তানবীরুল ইসলামকে কালিয়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ও প্রশান্ত কুমার দাসকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ৩০ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য
Loading...