মণিরামপুরে অতিরিক্ত ভর্তিফি আদায়ের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

0 ৫৪

প্রবীর কুন্ডু, মণিরামপুর

যশোরের মণিরামপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ভর্তি ফিস আদায়সহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নেমেছে। মঙ্গলবার কলেজ ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। আদায়কৃত অতিরিক্ত ভর্তি ফিস ২৪ ঘন্টার মধ্যে ফেরতের আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছে। অন্যথায় বুধবার দুপুর থেকে অধ্যক্ষের অপসারণসহ বিভিন্ন আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয় বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে।
জানা যায়, সরকার এইচএসসিতে ভর্তির জন্য এক হাজার টাকা ফিস (বোর্ডফিস) নির্ধারণ করেন। কিন্তু শিক্ষার্থীদের অভিযোগ মণিরামপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম ফারুকী সরকারের নির্দেশনা উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে মোট এক হাজার ছয়শ পঞ্চাশ টাকা হারে আদায় করছেন। এর মধ্যে ভর্তি ফিস বাবদ ব্যাংকে জমা দিতে হচ্ছে দেড় হাজার টাকা এবং কলেজ কার্যালয় থেকে ভর্তি ফরম বাবদ ১৫০ টাকা। ফলে বেশি টাকা আদায় করার অভিযোগ এনে শিক্ষার্থী প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠেছে।
মঙ্গলবার সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল এবং সামবেশ করে। কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান দ্বীপের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগ নেতা আবু সালেহ, হুমাইরা হেলাল, সাদ্দাম হোসেন, সাহিদুল, ইস্রাফিল, মাহবুর রহমান, সাজ্জাদ, রিমন, রনি, পরশ, কামরান প্রমুখ। আদায়কৃত অতিরিক্ত ভর্তি ফিস ২৪ ঘন্টার মধ্যে ফেরতের আল্টিমেটাম দেয়া সমাবেশ থেকে। অন্যথায় বুধবার থেকে অধ্যক্ষের অপসারনসহ বিভিন্ন আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয় বলে ছাত্রলীগ আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান দীপ নিশ্চিত করেন। তবে কলেজ অধ্যক্ষ জিএম রবিউল ইসলাম ফারুকী বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি, বোর্ডের পরিপত্র অনুযায়ী এবং কলেজ কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে নিয়ম মেনেই ভর্তি ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কোন যৌক্তিকতা নেই।
কলেজের গভর্নিংবডির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ জাকির হোসেন জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী ভর্তি ফিস নেওয়া হচ্ছে। কোন অবস্থাতেই বেশি নেওয়া হচ্ছে না।

মন্তব্য
Loading...