অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রাথমিক ক্যাম্পে যশোরের শাহারিয়ার সাকিব

৬৮৮

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে সুযোগ পেয়েছেন যশোর অনূর্ধ্ব-১৮ দলের অধিনায়ক শাহারিয়ার সাকিব। তিনধাপের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় শাহারিয়ার সাকিবকে ১৯ আগস্ট বিকেল ৪টায় রিপোর্ট করতে হবে বলে শুক্রবার সকালে জানিয়েছেন শাহারিয়ার সাকিব। আগামী ২২ আগস্ট সাভারের বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) প্রাথমিক দলের ৪৫ ক্রিকেটার নিয়ে শুরু হবে আবাসিক ক্যাম্প।
তবে ১৬ আগস্ট থেকে একাডেমি মাঠে বিশেষ অনুশীলনের আগে খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য ও করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করবে বিসিবি। এরপর পুরো দল ২০ আগস্ট বিকেএসপি যাবে। কন্ডিশনিং ক্যাম্প শেষে, নির্বাচকরা ২৫ বা ৩০ জনের স্কোয়াডে গঠন করবেন। চূড়ান্ত দলটি ট্রফি ধরে রাখার মিশন নিয়ে ২০২২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠেয় যুব বিশ্বকাপে অংশ নেবে। সাকিবের বাবা রুহুল আমিন শহরের চুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডের সবজি ব্যবসায়ী। মা সানজিদা বেগম গৃহিণী।
২০১৩সালে চাচা রাতুল ইসলামের হাত ধরে ক্রিকেটে যাত্রা শুরু। রাতুল ইসলাম বলেন, ‘সাকিব ছোট বেলার সারাদিন ক্রিকেট ব্যাট বল নিয়ে খেলতো। সেই সাথে ওর বন্ধুদের কাছে শুনতাম ভাল খেলে। আনুষ্ঠানিক শিক্ষার জন্য যশোর ক্রিকেট কোচিং সেন্টারে ভর্তি করায়। রাতুল আরো বলেন, পরিবারের সবাই স্বপ্ন দেখে সাকিব একদিন বড় ক্রিকেটার হবে।
ক্রিকেটে আনুষ্ঠানিক হাতে খড়ি হয় যশোর ক্রিকেট কোচিং সেন্টারে। ২০১৬ সালে বিকেএসপিতে ভর্তির সুযোগ পেলে বদলে যেতে থাকে তার ক্রিকেট জীবন। এরপর অনূর্ধ্ব-১৬, ১৭ ও ১৮ ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স দেখিয়ে সুযোপ পেয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে। ভাল করে চূড়ান্ত দলে থাকায় লক্ষ্য বলে জানান সাকিব। সেই সাথে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
যশোর ক্রিকেট কোচিং সেন্টার ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের জেলা কোচ আজিমুল হক বলেন, যশোরের অনেক ক্রিকেটারই এই পর্যায়ে গিয়েছে। তবে এদের মধ্যে দুই একজন ছাড়া অধিকাংশই হারিয়ে গেছে। তাই সাকিবকে এদের থেকে শিক্ষা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। আল্লাহ যদি সহায় থাকে সেইসাথে সাকিব যদি কঠোর পরিশ্রম ধরে রাখে আর খেলার মাঠ ও মাঠের বাইরে দুই যায়গায় ডিসিপ্লিন থাকে তবে তুষার ইমরান সৈয়দ রাসেলের স্থান পূরন করতে পারবে।

মন্তব্য
Loading...