কেশবপুরের হাতুড়িবাহিনী প্রধান আজিজ গ্রেফতার, আদালতে সোপর্দ

0 ৮২

নিজস্ব প্রতিবেদক

যশোরের কেশবপুরের হাতুড়িবাহিনীর প্রধান ও উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্মআহ্বায়ক আব্দুল আজিজকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, মঙ্গলবার রাতে উপজেলা সদর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে পরিবারের দাবি, গত ২৭ জুলাই তাকে কেশবপুরের ব্রাহ্মণকাটি গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আব্দুল আজিজ উপজেলা ব্রাহ্মণকাটি গ্রামের খন্দকার রফিকুজ্জামানের ছেলে।
কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, আব্দুল আজিজ একটি সন্ত্রাসীবাহিনীর প্রধান। তার নামে থানায় নয়টি মামলা রয়েছে। মঙ্গলবার রাতে কেশবপুর সদর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
আব্দুল আজিজের বড় ভাই শরিফুল ইসলাম জানান, ২৭ জুলাই সন্ধ্যা সাতটার দিকে তার ছোট ভাই আব্দুল আজিজকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারি আমার ভাইকে থানাহাজতে আটক রাখা হয়েছে। পরে তাকে দুই দিন থানাহাজতে আটকে রাখা হয়। বুধবার তাকে একটি পেন্ডিং ডাকাতি মামলায় আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
যেভাবে হাতুড়িবাহিনীর উত্থান : ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর কেশবপুরে হাতুড়িবাহিনীর আবির্ভাব ঘটে। আওয়ামী লীগের গ্রুপিংয়ের রাজনীতিতে দলীয় প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতেই এই বিশেষ বাহিনীর উত্থান হয়। তৎকালীন এমপি হুইপ আবদুল ওহাবের ছত্রচ্ছায়ায় এ বাহিনী ছিল বলে সেই সময় জাতীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যমে একাধিক খবরও প্রকাশিত হয়। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন ইসমাত আরা সাদেক। পরে তিনি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী হন। এক সময় সাবেক হুইপের ছত্রচ্ছায়ায় থাকায় হাতুড়িবাহিনীর সদস্যরা তৎকালীন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর ছত্রচ্ছায়ায় অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠে বলে অভিযোগ করেন খোদ উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। হাতুড়িবাহিনীর নেতৃত্বে ছিল শরিফুল, আজিজুর, রশিদ, বাপ্পী, আসাদ, জাহাঙ্গীর, গিয়াস, কামরুল তানজিল।
চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি মারা যান যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনের সংসদ সদস্য ইসমাত আরা সাদেক। এরপর উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। এরপর এলাকা ছেড়ে পালায় হাতুড়িবাহিনী প্রধান আজিজুরসহ তার সহযোগীরা। গত ১৪ জুলাই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন শাহীন চাকলাদার। শপথ গ্রহণের পর ২৯ জুলাই প্রথম কেশবপুর গিয়েছেন তিনি। আর এই দিনে হাতুড়িবাহিনী প্রধান আজিজকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
উপনির্বাচনের আগে নির্যাতিত দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে শাহীন চাকলাদার বলেছিলেন, কেশবপুরের মাটিতে কোনো সন্ত্রাসীর জায়গা হবে না।

মন্তব্য
Loading...