ভাত রান্না না করায় সেলিনাকে হত্যা করে স্বামী

0 ৫০

নিজস্ব প্রতিবেদক

যশোরের কেশবপুর উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের গৃহবধূ সেলিনা বেগম হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে স্বামী ওদুদ মোল্লা। ভাত রান্না না করায় লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয় তাকে। বুধবার যশোরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা বসু আসামির জবানবন্দি গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। ওদুদ রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত গহর আলীর ছেলে।
ওদুদ জবানবন্দিতে জানিয়েছেন, ১৫ বছর আগে পাঁচ বাকাবর্শি গ্রামের মৃত লিয়াকত আলীর মেয়ে সেলিনা বেগমকে বিয়ে করেন। সংসার জীবনে তাদের মাঝেমধ্যে ঝগড়া হতো। চলতি বছরের ১৩ জুলাই বাইরে থেকে এসে দেখেন তার স্ত্রী ভাত রান্না করেনি। এ নিয়ে ঝগড়ার এক পর্যায়ে গাছের ডাল দিয়ে সেলিনার হাতে মারতে গেলে মাথায় লেগে যায়। সেলিনার নাক দিয়ে রক্ত পড়ছিল। খুলনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৭ জুলাই সেলিনা বেগম মারা যায়।
সেলিনাকে হত্যার অভিযোগে তার মামা রামচন্দ্রপুর গ্রামের আজিজুর গাজী মঙ্গলবার কেশবপুর থানায় ওদুদকে আসামি করে হত্যা মামালা করেন। মামলার অভিযোগে ভিত্তিতে পুলিশ ওদুদকে আটক করে বুধবার আদালতে সোপর্দ করে।
হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ওই জবানবন্দি দিয়েছেন ওদুদ।

মন্তব্য
Loading...