যশোরে খেলোয়াড়দের ঘরবন্দী দীর্ঘস্থায়ীর শঙ্কা

0 ১৫৫

এম এ রাজা

করোনাকাল শেষে ইউরোপে লিগ শুরু হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে মৌসুম শেষও হয়ে যাবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড খেলোয়াড়দের অনুশীলনের অনুমতি দিয়েছে। অপরদিকে আগস্টে অনুশীলন শুরু করবে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও হকি ফেডারেশন। তবে অনুশীলন বা খেলা মাঠে নামানো নিয়ে ভাবেনি যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন কর্মকর্তারা। তবে কিছু খেলোয়াড় ব্যক্তিগত উদ্যোগে দলবন্ধভাবে অনুশীলনে নেমে পড়েছেন।
যশোর জেলা ফুটবল দলের মাঝমাঠের খেলোয়াড় জাহিদ হাসান বলেন, খেলা কবে মাঠে গড়াবে জানি না। তবে ফিটনেস ধরে রাখার জন্য বাড়ির পাশে মাঠে কিছু কাজ করছি। সেই এলাকার ছেলেদের সাথে মাঝে মাঝে প্রাকটিস করছি।
একই কথা বলেন দলের অধিনায়ক আক্তার বাবু তিনি বলেন, এলাকায় দ্বিতীয় বিভাগ ফুটবল লিগের একটা দল আছে। এই টিমের ছেলেদের সাথে আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রাকটিস করছি।
তবে এদের একধাপ এগিয়ে গেছেন যশোরের ক্রিকেটাররা। তারা ফিটনেস নিয়ে কাজ করার পাশাপাশি স্কিল ডেভেলপমেন্ট নিয়েও কাজ করছেন। খুলনা বিভাগীয় দলের সাবেক বাঁহাতি স্পিনার মুরাদ খান নিজ উদ্যোগে স্পিন বোলিং স্কিল ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করছেন। এখানে জেলা দলের খেলোয়াড়সহ যশোরের বেশ কিছু উদীয়মান খেলোয়াড়রা অংশ নিচ্ছেন।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের জেলা কোচ আজিমুল হক বলেন, বিসিবি নির্দেশনা পেলেই মাঠে অনুশীলন শুরু করব।
দীর্ঘ দুই বছর পর যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নতুন কমিটি দায়িত্ব গ্রহণ করেন। দায়িত্ব নেয়ার পরই শুরু হয় করোনাকালীন। দায়িত্ব নেয়ার পরই বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দুটি টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। আরও কয়েকটি টুর্নামেন্ট করার ঘোষণা দিয়েছিল। তবে করোনার কারণে এসব স্থগিত ঘোষণা করে। করোনার পরবর্তী বিভিন্নস্থানে খেলা শুরু করলেও এখনও জেলা ক্রীড়া সংস্থা কোনো কার্যক্রম শুরু করেনি। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব কবির বলেন, আমি এই পরিস্থিতিতে কি করা যায় তা নিয়ে আলোচনার জন্য সভাপতি জেলা প্রশাসককে একাধিকবার বলেছি। কিন্তু তিনি পরিস্থিতি আর একটু স্বাভাবিক হওয়ার কথা বলেন। কিন্তু পরিস্থিতি দিন দিন জটিল হচ্ছে। কবে মাঠে খেলা ফিরবে এই বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি তিনি।
যশোর জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন প্রথম বিভাগ ফুটবল লিগ শুরুর করার ঘোষণা দিয়েছিল। কিন্তু কবে আবার লিগ শুরু করবে তা এখনও ভাবেননি ডিএফএ কর্মকর্তারা। ঈদ পরে সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানান জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আসাদুজ্জামান মিঠু।

মন্তব্য
Loading...