যশোরে প্রতিরক্ষা সচিব : কোরবানির পশুহাট বড় ফাঁকা স্থানে করার ওপর গুরুত্বারোপ

0 ২২

নিজস্ব প্রতিবেদক

শুক্রবার সকালে যশোর সার্কিট হাউস মিলনায়তনে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রতিরক্ষা সচিব ও জেলা করোনা প্রতিরোধ ও ত্রাণ কার্যক্রমের সমন্বয়ক ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সভায় আসন্ন কোরবানির পশুহাট বড় ফাঁকা স্থানে করার ব্যাপারে আলোচনা হয়। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেন প্রধান অতিথি।
সভায় যশোরের করোনা প্রাদুর্ভাবের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিরক্ষা সচিব লকডাউন কার্যকর করার ক্ষেত্রে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকদের সম্পৃক্ত করে কাজ করার লক্ষ্যে সচেতনতা বাড়ানোর বিষয়ে আলোকপাত করেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্থনৈতিক কার্যক্রমকে বেগবান রাখার লক্ষ্যে করণীয় বিষয়েও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সংক্রমণ প্রতিরোধে মসজিদের ইমামদের মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি প্রচারের বিষয়টি সভায় গুরুত্ব পায়। এক্ষেত্রে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ও ইমাম পরিষদকে কাজে লাগানো হবে বলে আলোচনা হয়েছে।
যশোর জেনারেল হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন স্থাপন ও উন্নতকরণের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরা হয় সভায়। সচিব ড. আবু হেনাকে এ বিষয়ে দ্রুত কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ করা হয় সভা থেকে। প্রতিরক্ষা সচিব বিষয়টি নিয়ে কাজ করবেন বলে সভাকে অবহিত করেন।
নবাগত জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে সভায় যশোর মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আক্তারুজ্জামান, পুলিশ সুপার মো. আশরাফ হোসেন, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দীলিপ কুমার রায়, সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন, সেনাবাহিনীর, প্রতিনিধি ৩৭ বীর-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল নিয়ামুল হালিম খান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শেখ অহিদুল আলম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন অংশ নেন।
সভা শেষে প্রতিরক্ষা সচিব যশোরের দুটি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল, জিডিএল হাসপাতাল ও বক্ষব্যাধি ক্লিনিক পরিদর্শন করেন। তিনি দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের তাদের কাজের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং রোগীবান্ধব এই কার্যক্রমকে আরো মানসম্পন্ন করার জন্য দিকনির্দেশনা দেন।

মন্তব্য
Loading...