ভারত রপ্তানি পণ্য না নেয়ায় বেনাপোল দিয়ে আমদানি বন্ধ

১০৩

বেনাপোল প্রতিনিধি

ভারত রপ্তানি পণ্য গ্রহণ না করায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা রপ্তানি পণ্য গ্রহণের দাবিতে আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ডাক দেন। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বেনাপোল চেকপোস্টে আমদানি পণ্য ঢুকতে না দেয়ার ঘোষণা দেন তারা। সিএন্ডএফ এজেন্ট কর্মচারীরাও এদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন।
সারাবিশ্বে করোনা মহামারির জন্যে বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি ও রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ ৭৫ দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে গত ৬ জুন এ পথে আমদানি বাণিজ্য চালু হলেও রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। ভারত সরকার ও সে দেশের ব্যবসায়ীরা ভারতের পণ্য বাংলাদেশে ঢোকার অনুমতি দিলেও বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য নিতে তারা অস্বীকার করছে। বেনাপোল চেকপোস্ট এলাকায় রপ্তানি পণ্যের গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে। এসব গাড়ির পণ্য রোদ ও বৃষ্টিতে ভিজে নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

বেনাপোল সিএন্ডএফ কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান বলেন, ভারত আমদানি পণ্য দিলেও তারা রপ্তানি পণ্য গ্রহণ করছে না। যার প্রতিবাদে ব্যবসায়ীরা আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ডাক দেন। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ভারত থেকে কোনো আমাদানি পণ্য বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। বেনাপোল বন্দরে ভারতে প্রবেশের অপেক্ষায় প্রায় ৭-৮শ ট্রাক রপ্তানি পণ্য নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে।
বেনাপোল কাস্টমসের কার্গো শাখার সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শামিমুর রহমান বলেন, রপ্তানি পণ্য ভারত গ্রহণ না করায় বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ডাক দেন। ফলে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে।
ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সিএন্ডএফ ওয়েলফেয়ার সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে রপ্তানি পণ্য নেয়া হচ্ছে না। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা যদি মনে করেন, তারা এই ভাইরাসের কারণে আমদানি পণ্য নেবেন না তবে সেটা তাদের ব্যাপার। আমাদের বিধিনিষেধ থাকার কারণে আমরা বাংলাদেশ থেকে রপ্তানি পণ্য নিতে পারছি না।

মন্তব্য
Loading...