শরণখোলায় খেয়া ভাড়া ফ্রি করলেন চেয়ারম্যান

0 ৬৩

শরণখোলা প্রতিনিধি : জনসাধারণের পারাপারে সুবিধার জন্য খেয়া ভাড়া সম্পূর্ণ ফ্রি করে দিয়েছেন বাগেরহাটের শরণখোলার খোন্তাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন। রায়েন্দা ও খোন্তাকাটা ইউনিয়নবাসীর চলাচলের বিকল্প ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত খেয়া পরিচালনাকারীদের খরচ তিনি বহন করবেন বলে ঘোষণা দেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ ঘোষণা দেন তিনি।
প্রসঙ্গত, রোববার দুপুরে রায়েন্দা খালের সেতুটি হঠাৎ হেলে পড়ে। এরপর থেকে মানুষজনের চলাচল বন্ধ করে দিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে ওই খালে খেয়া পারাপারের ব্যবস্থা করা হয়। প্রতিদিন দুই ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষকে চরম কষ্ট ভোগ করে একটি খেয়ার নৌকায় পার হতে হচ্ছে। এভাবে পার হতে গিয়ে সোমবার সকালে অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা ডুবে যায়। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
শরণখোলা সরকারি কলেজের শিক্ষক সাব্বির আহম্মেদ মুক্তা বলেন, সেতু বন্ধ হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে মানুষ। একটি মাত্র নৌকায় এতো মানুষের চাপ সামলানো অসম্ভব। দুই পারে ভিড় জমে যায়। মালামাল নিয়ে অপেক্ষা করতে হয় ঘন্টার পর ঘন্টা। এ অবস্থায় পারাপার ফ্রি করে দেয়ায় খোন্তাকাটার চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানাই।
খোন্তাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে দুই ইউনিয়নের মানুষের চলাচলে সুবিধার জন্য মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকল্প ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত খেয়া ভাড়া ফ্রি করে দিয়েছি। উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা তহবিল এবং রায়েন্দা ও খোন্তাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে এখানে কাঠের সেতু নির্মাণ করা হবে। দুই-একদিনের মধ্যেই শুরু হবে কাজ।
রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন বলেন, কাঠের সেতু তৈরিতে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা ব্যয় হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা তহবিল থেকে এক লাখ টাকা বরাদ্দ করেছেন। বাকি চার লাখ টাকা দুই ইউনিয়ন পরিষদ থেকে দেয়া হবে।

মন্তব্য
Loading...