জীবননগরে ইটভাটার মাটিতে চলাচলের অযোগ্য সড়ক

৮২

রমজান আলী, জীবননগর : জীবননগর শহরের বাসস্ট্যান্ড থেকে চ্যাংখালীগামী সড়কটি ব্যস্ততম সড়ক। এ সড়কের ওপর ইটভাটার মাটিভরা ট্রাক্টর থেকে মাটি পড়ে বৃষ্টি-কাদায় রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। শনিবার ওই রাস্তা দিয়ে পথচারী ও যানবাহন চালকদের মারাত্মক দুর্ভোগের শিকার হতে হয়। কিন্তু এ ব্যাপারে প্রশাসনের কোনো পদক্ষেপ না থাকায় ব্যবসায়ীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
জীবননগর বাজারের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, রাতের আঁধারে ট্রাক্টর ও পাওয়ার টিলারের মাধ্যমে ইটভাটায় মাটি বহনের ফলে রাস্তায় মাটি পড়ে। পরে বৃষ্টির পানিতে মাটি গলে কাদার সৃষ্টি হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ওই রাস্তায় চলাচলকারী অনেক পথচারীকে পড়ে যেতে দেখা গেছে। আবার অনেক মোটরসাইকেল আরোহী পড়ে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন। এ অবস্থা শুধু চ্যাংখালী সড়কেই নয়, দত্তনগরগামী সড়কেও দেখা গেছে। ভুক্তভোগীদের দাবি, এভাবে শহরের ব্যস্ততম সড়কের ওপর দিয়ে মাটিটানা হলে জনস্বাস্থ্য চরম হুমকির মুখে পড়বে। শুধু বৃষ্টিতে নয়, অন্য সময়েও মাটিটানা হলে ধুলাবালিতে শহরের মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠবে।
জীবননগর শহরের দফাদার হোটেলের মালিক রফিকুল ইসলাম বলেন, সারারাত ধরে ট্রাক্টর দিয়ে মাটি বহনের কারণে রাস্তায় মাটি পড়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। অন্যদিকে ভোরের দিকে বৃষ্টিপাতের কারণে রাস্তায় পড়া মাটি পানিতে একাকার হয়ে পড়ে এবং মানুষের দুর্ভোগ চরমে গিয়ে দাঁড়ায়। জীবননগর বাসস্ট্যান্ড থেকে চ্যাংখালী সড়কটি একটি জনগুরুত্বপূর্ণ ও ব্যস্ততম সড়ক। এ সড়কের ওপরে মাটি পড়ে তা চলাচলের অনুপযোগী হবে তা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এভাবে রাস্তা দিয়ে মাটি বহন করা হলে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠবে এবং লোকজন রোগে-শোকে আক্রান্ত হয়ে পড়বে। আমরা এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

মন্তব্য
Loading...