বেনাপোলে যুবলীগ নেতাকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা

২৭৪

বেনাপোল প্রতিনিধি : পূর্বশত্রুতার জের ধরে বেনাপোলে যুবলীগ নেতা বিল্লাল হোসেনকে অস্ত্র ও গুলি দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার বোন হালিমা খাতুন।
অভিযোগে তিনি জানান, রোববার গভীর রাতে র‌্যাবের একটি দল বেনাপোল ভবারবেড় গ্রাম থেকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে সাজানো বিল্লালের ছাদের ওপর থেকে ২৬ পিস ফেনসিডিল ও একটি পিস্তল উদ্ধার করে। এ সময় বিল্লাল বাড়ি ছিলেন না।
বিল্লাল হোসেন বেনাপোল পৌর যুবলীগের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও বেনাপোল ভবারবেড় গ্রামের আফা উদ্দিনের ছেলে। বোন হালিমা খাতুন বলেন, আমার ভাইকে পূর্বশত্রুতার জের ধরে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয়েছে। গভীর রাতে যশোর র‌্যাবের একটি টিম এসে আমাদের বাড়ি তল্লাশি করে। কিছু না পেয়ে তখন পাশের একটি বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে বিল্লালের ছাদে একটি টোপলা চেলে মারে একজন। র‌্যাব তখন ফিরে এসে ওই টোপলা উদ্ধার করে এবং টোপলা খুলে তার ভিতর থেকে একটি পিস্তল ও ২৬ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে। এরপর আমাদের স্বাক্ষর নিয়ে চলে যায়।
হালিমা আরও বলেন, বেনাপোলে আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপ আছে। আমরা মেয়র গ্রুপের সমর্থক হওয়ায় অন্য গ্রুপটি আমাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করেছে। আমি এ ব্যাপারে ওই দিন দুপুরে গোপন একটি খবর মারফত জানতে পেরে কয়েকজনকে ফোন করেও জানিয়েছিলাম আমার ভাই বিল্লালকে অস্ত্র দিয়ে আটকের ষড়যন্ত্র চলছে। আর দুপুরে এ ঘটনা জানার পর রাতে ঘটলো তাহলে এটা সাজানো নাটক ছাড়া আর কি হতে পারে?
এ ব্যাপারে যশোর র‌্যাব অফিসে ফোন করলে ওয়ারলেস অপারেটর কিছু জানেন না বলে জানান। অভিযানে অংশ নেয়া রাজ্জাক নামে একজন র‌্যাব সদস্য বলেন, বিষয়টি নিয়ে পরে জানাবো। এখন ব্যস্ত আছি।

মন্তব্য
Loading...